সোমবার   ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৫ ১৪২৬   ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
৫৬

জাতির অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য বেঁচে আছি: অর্থমন্ত্রী 

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তাফা কামাল বলেছেন, আমরা জাতির পিতার স্বপ্ন, অর্থনৈতিক মুক্তির কাজটি করার জন্য আমরা বেঁচে আছি। আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। প্রধানমন্ত্রী অনুপ্রাণিত করছেন আমাদের।

বুধবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আতাউর রহমান খান কায়সারের ৯ম মৃত্যুবার্ষিকীর সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, অস্থিরতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। মিচম্যাচ, যেটা হওয়ার কথা ছিল না। আমি বিশ্বাস করি, এখন যা ঘটছে তা কেটে যাবে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামের মানুষ কায়সার ভাইকে এখনো ভালোবাসেন। আমি তার মতো হতে পারবো না। আমি চট্টগ্রাম কমার্স কলেজের ছাত্র ছিলাম। ছাত্রলীগ করতাম। আমি এখনো মনে করি আমি আওয়ামী লীগ নয় ছাত্রলীগ করি। সিটি কলেজ ও কমার্স কলেজের ছাত্র সংসদে আমরা জিততাম।

স্মৃতিচারণ করে বলেন, কায়সার ভাইরা ক্ষণজন্মা পুরুষ। তারা মানুষের কল্যাণে জীবন উৎসর্গ করেছেন। তিনি যখন কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত হন তখন ৫ বার সভা হয়েছে। দুপুরে অফিসে, রাতে উনার বাসায় খেতাম। ষাটের দশকে কোরিয়ার অবস্থা আমাদের চেয়ে খারাপ ছিল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর কোরিয়া ভাগ হয়। তাদের ঘরে খাবার ছিল না। স্কুল ছিল না। তাদের মায়েরা মাথার সোনালি চুল বেচে সন্তানকে স্কুলে পাঠাতেন। ৩০ বছরে অর্থনীতিতে সমৃদ্ধ দেশ হয়েছে।

নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম।

বক্তব্য দেন নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নইমউদ্দিন চৌধুরী, খোরশেদ আলম সুজন, আলতাফ হোসেন বাচ্চু, উত্তর জেলা সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম, যুগ্ম সম্পাদক বদিউল আলম, দক্ষিণ জেলা সহ-সভাপতি মো. ইদ্রিস, উত্তর জেলা যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, চট্টগ্রামের অভিভাবক ছিলেন আতাউর রহমান খান কায়সার। তিনি সঠিক সিদ্ধান্ত দিয়ে দলকে দুঃসময়ে এগিয়ে নিয়েছিলেন। তিনি জ্ঞানী, নির্মোহ, ত্যাগী নেতা ছিলেন।

পরিবারের পক্ষে বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য ওয়াসিকা আয়েশা খান। সঞ্চালনায় ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর