বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
২৪

মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় গুরুত্ব স্পিকারের

প্রকাশিত: ১৫ অক্টোবর ২০১৯  

মানবাধিকার সুরক্ষা ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সংসদীয় কূটনীতির মাধ্যমে সচেতনতা বৃদ্ধি সম্ভব বলে মনে করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন,  মানবাধিকার এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় পার্লামেন্টগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। 

সোমবার (১৪ অক্টোবর) সার্বিয়ার বেলগ্রেডে ১৪১তম আইপিইউ সম্মেলনে "স্ট্র্যানদেনিং ইন্টারন্যাশনাল ল: পার্লামেন্টারি রোলস অ্যান্ড মেকানিজম অ্যান্ড দ্যা কন্ট্রিবিউশান অব রিজিওনাল কো-অপারেশন " শীর্ষক জেনারেল ডিবেটে অংশ নিয়ে স্পিকার এসব কথা বলেন। জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


স্পিকার শিরীন শারমিন আরও বলেন, গণতন্ত্রকে অধিকতর কার্যকর করতে মানবাধিকার, মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করাসহ  আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার বিকল্প নাই। বাংলাদেশ পার্লামেন্ট এলক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। সমতা ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ কার্যকর ভূমিকা রাখছে- যেখানে থাকবে না দারিদ্রতা কিংবা শোষন।

এ অনুষ্ঠানে আইপিইউ প্রেসিডেন্ট গ্যাব্রিয়েলা চুয়েভাস ব্যারন, সেক্রেটারি মার্টিন চুংগং এবং সার্বিয়া পার্লামেন্টের স্পিকার ও ১৪১তম আইপিইউ সম্মেলনের প্রেসিডেন্ট মিজ মাজা গজকোভিচ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সংসদীয় প্রতিনিধিদলের সদস্য ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ নূর -ই-আলম চৌধুরী, হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ, শিল্প মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আমির হোসেন আমু, মো. হাবিবে মিল্লাত এমপি, ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি, আবদুস সালাম মূর্শেদী এমপি, পীর ফজলুর রহমান এমপি, সুবর্ণা মুস্তাফা এমপি, শবনম জাহান এমপি, সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান এবং ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদার অংশগ্রহণ করেন।

সম্মেলনে ১৪০টি দেশের ৮০ জন স্পিকার, ৬০ জন ডেপুটি স্পিকারসহ ১৫০০ এর অধিক প্রতিনিধি সংসদীয় গণতন্ত্রের অন্যতম বৃহত্তম এ এসেম্বলিতে অংশ নিচ্ছেন।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর