বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
২৩

মাল্টা নিয়ে অতিথি গেলে আপ্যায়ন করবেন না!

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০১৯  

আমদানি করা মাল্টা নিয়ে কেউ কেউ বাড়িতে যান বেড়াতে। এ মাল্টা নিয়ে অতিথি গেলে আপ্যায়ন করবেন না। মাল্টা নষ্টই হয় না, ছয় মাস থাকবে বাড়িতে। মাল্টা নিয়ে বেড়াতে যে যাবে সে একটা হতভাগা। বাংলা কলা, দেশি পেঁপে নিয়ে যান।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে ৫০তম বিশ্ব মান দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান এসব কথা বলেন। এবারের প্রতিপাদ্য ছিল ‘ভিডিও মান বৈশ্বিক সম্প্রীতির বন্ধন।’

তিনি বলেন, মিনারেল ওয়াটারের নামে যা বিক্রি হচ্ছে তা আদৌ মিনারেল ওয়াটার? বিএসটিআই'র আওতার বাইরে থাকা পণ্যগুলোর কী অবস্থা? এত ভেজাল খাচ্ছি আমাদের দেহ পচে কিনা সেটিই এখন  দেখার বিষয়। সম্রাট নেপোলিয়নের মরদেহ অনেক বছর পর সমাধি থেকে তোলার পর দেখা গেলো পচেনি। তাকে আর্সেনিকযুক্ত খাবার, রাসায়নিকযুক্ত খাবার খাওয়ানো হয়েছিল। কনফেকশনারিতে ঢুকলে দেখবেন, ৫০ ধরনের পাউরুটি বিক্রি হচ্ছে দেশে। চকচকে দেখে আনবেন? কয়টা বিএসটিআই অনুমোদিত। অনুমোদনের পরও শতভাগ মান রক্ষার গ্যারান্টি দিতে পারছি কিনা ভাববার আছে।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, দেশে হার্টের রিং পরানোতে নৈরাজ্য চলছিল। একেক হাসপাতালে একেক রকম দাম ছিল। সরকার এটি নিয়ন্ত্রণে এনেছে কঠোরভাবে। এখন তারা বিভিন্ন দামের, বিভিন্ন দেশের রিং রাখছে। সরকার সব অনিয়ম অপকর্ম রোধে কঠোর ভূমিকা নিয়েছে।

বিএসটিআই’র সেবা বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে বলেন, টেস্টিং ল্যাব ঢাকার মতো চট্টগ্রামেও থাকতে হবে। ইন্ডাস্ট্রিয়াল সব মেটারিয়াল এখানে। জাহাজভাঙা শিল্প, জাহাজ নির্মাণ শিল্প থেকে শুরু করে সব ধরনের কারখানা এ জনপদে আছে। এগুলো পরীক্ষার জন্য বার বার ঢাকা যাওয়া অসুবিধার। সময় ও খরচের ব্যাপার। তাই চট্টগ্রামে উন্নত ল্যাব দরকার।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী প্রমুখ। বিএসটিআই চট্টগ্রামের পরিচালক প্রকৌশলী মো. সেলিম রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ বক্তব্য দেন বিএসটিআই'র শওকত ওসমান।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর